করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে খুলনা মহানগরীর ১৭ ও ২৪ নং ওয়ার্ড এবং জেলার রূপসা উপজেলার আইচগাতি ইউনিয়ন বৃহস্পতিবার রাত ১২টা থেকে লকডাউন করা হচ্ছে। এই এলাকাগুলোতে প্রবেশ ও বের হওয়ার ৬৪টি পয়েন্টে পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উদ্যোগে বাঁশ দিয়ে সড়কে ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে রূপসা ও ভৈবর নদের ৬টি ঘাটে যাত্রীবাহী ট্রলার চলাচল।

এ বিষয়ে রূপসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন আকতার জানান, আইচগাতি ইউনিয়নের প্রায় ১০টি পয়েন্টে পুলিশ ও স্থানীয় ইউপি সদস্যরা বাঁশ দিয়ে যানবাহন ও লোক চলাচলে প্রতিবন্ধকতা দিয়েছেন। ৯ জন ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে ৯টি টিম করা হয়েছে। প্রতিটি টিমে ৭/৮ জন করে সদস্য রয়েছেন। তারা লকডাউনের বিষয়টি সার্বক্ষণিক তদারকি করবেন। এছাড়া ৬টি ঘাটে যাত্রীবাহী ট্রলার চলাচল বন্ধ করা হচ্ছে।  

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি (মিডিয়া) কানাই লাল সরকার জানান, নগরীর ১৭ নং ওয়ার্ডের ২৪টি পয়েন্টে ও ২৪ নং ওয়ার্ডের ৩০টি পয়েন্টে বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে। 

খুলনা সিভিল সার্জন অফিসের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার মেডিকেল অফিসার ডা. সাদিয়া মনোয়ারা ঊষা জানান, এ পর্যন্ত নগরীর ১৭ নং ওয়ার্ডে ৯৮ জন, ২৪ নং ওয়ার্ডে ৫০ জন ও আইচগাতি ইউনিয়নে ৩৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। 

খুলনা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. হেলাল হোসেন জানান, আগামী ১৬ জুলাই রাত ১২টা পর্যন্ত রেডজোনে মুদি দোকান ও ওষুধের দোকান ছাড়া অন্যান্য দোকানপাট বন্ধ থাকবে। রেস্টুরেন্ট ও খাবার দোকানে শুধুমাত্র হোম ডেলিভারি সার্ভিস চালু থাকবে। বন্ধ থাকবে সকল প্রকার যানবাহন চলাচল। রেডজোনে অন্য এলাকা থেকে কেউ প্রবেশ করতে পারবে না। 

তিনি জানান, মসজিদ ও উপাসনালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ইবাদত করতে পারবেন। অন্যান্যরা নিজ নিজ বাড়িতে ইবাদত করবেন। তবে সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ও কাঁচাবাজার এর আওতামুক্ত থাকবে।

 1,464 total views,  4 views today

1 thought on “খুলনার তিন এলাকা মধ্যরাত থেকে লকডাউন হচ্ছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>